””         আরামবাগ আরটিও অফিসে লাইসেন্স ফি তে দুর্নীতির অভিযোগ – Arambagh Times
Sat. Feb 27th, 2021

Arambagh Times

কাউকে ছাড়ে না

আরামবাগ আরটিও অফিসে লাইসেন্স ফি তে দুর্নীতির অভিযোগ

1 min read

নিজস্ব সংবাদদাতা : আর টি ও অফিসের বিরুদ্ধে প্রায় সর্বত্রই লাইসেন্স প্রদান এর জন্য ফি নেওয়া নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে। আরামবাগও যে ব্যাতিক্রম নয় তার প্রমাণ ভুক্তভোগী লাইসেন্স করাতে আসা অসংখ্য মানুষের অভিযোগ। প্রাক্তন মহকুমা শাসক লক্ষ্মী ভি তান্নিরু থাকাকালীন আর টি ও অফিসের আরামবাগ কেন্দ্রে অভিযোগের মাত্রা অনেক কম থাকলেও বর্তমানে যেন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। অভিযোগ, ড্রাইভিং লাইসেন্স করাতে যেখানে সরকারি নির্ধারিত ফি ৮০০ টাকা, সেখানে কিভাবে এই আরামবাগে ২২০০–৩৫০০‌ টাকা কি তারও বেশি দিতে পারতপক্ষে বাধ্য করা হয়? দিতেই হবে, নচেৎ লাইসেন্স পেতে কালঘাম ছুটবে। দিনের পর দিন, মাসের পর মাস হয়রানির শিকার হতে হবে। আর টি ও অফিস জুড়ে দালাল চক্র শেষ কথা বলে। শুরু হয় অনলাইনে ফর্ম ফিলাপ করার ম্যাজিক দিয়ে। সরকার মুখে বলে দালালদের খপ্পরে পড়বেন না, নিজের নাম নিজে অনলাইনে নথিভুক্ত করতে হবে। কোনো সাধারণ মানুষজন নিজের লাইসেন্স নিজে থেকে উদ্যোগী হয়ে অনলাইনে ফর্ম ফিলাপ করতে গেলে আদৌ কবে লাইসেন্স বুক করা সম্ভব হবে সন্দেহ আছে। কারন বুকিং এর একটি সময় নির্ধারণ করা হয়, সেটাও আবার কবে কোন সময় হবে জানতেও দালাল চক্রের শরনাপন্ন হতেই হবে। তাদের জানিয়ে দেওয়া সময়ে ফর্ম ফিলাপ করতে হবে, এতেই হবে না, এরপরও ধাপে ধাপে সন্তুষ্টিকরনের ব্যাপার আছে। নাহলে পরীক্ষা দিতে গিয়ে রীতিমতো হয়রানির শিকার হতে হবে। অভিযোগ, দালাল চক্র সন্তুষ্ট থাকা মানেই পরীক্ষক সন্তুষ্ট। পাশ/ফেল/পুনরায় পরীক্ষায় বসার আদেশ/ পুনরায় ফর্ম ফিলাপ এসবের পিছনেই প্রনামী একমাত্র উপায়। এরসঙ্গে আবার যোগ হয়েছে নতুন দন্ড। লাইসেন্স পেতে গাড়ি আনতেই হবে, আর দুই থেকে যত চাকার গাড়ি মহকুমা শাসক কার্যালয়ের এলাকায় থাকবে তার জন্য মোটা অংকের টাকা গুনতে হবে।আর টি ও অফিসের বিরুদ্ধে লাগাতার অভিযোগ থাকলেও বর্তমান মহকুমা শাসক নৃপেন্দ্র সিং নাকি সব জেনেও অদৃশ্য কোন কারনে নীরব থাকাকেই শ্রেয় মনে করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Copyright © All rights reserved. | Powered by KTSL TECHNOLOGY SERVICES PVT LTD(7908881231).